মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

এক নজরে

এক নজরে যুব উন্নয়ন কার্যালয়ের কার্যক্রমের ক্রমপুঞ্জিত অগ্রগতিঃ

মোট প্রশিক্ষণ গ্রহণকারীর সংখ্যা : ৪৫,১৫,১৪১ জন।
মোট আত্মকর্মীর সংখ্যা : ২০,০৮,২৯৮ জন।
মোট প্রাপ্ত যুব ঋণ তহবিলের পরিমাণ : ১৬৬,১৯.৩৩ লক্ষ টাকা।
মোট বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ : ১৩৫৬,৪৯.৫৫ লক্ষ টাকা।
মোট ঋণ গ্রহণকারীর সংখ্যা : ৮,৩৪,৩৫১ জন।
মুল ঋণ তহবিল থেকে প্রাপ্ত সার্ভিস চার্জের পরিমাণ : ১৬৬,৮৫.৮৯ জন।
সার্ভিস চার্জসহ মোট ঋণ তহবিল : ৩৩৩,০৫.২২ লক্ষ টাকা।
ঋণ আদায়ের গড় হার (%) : ৯৪%।
ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষণ প্রদান : ৮৩,৬২৬ জন।

ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় দুই বছরের অস্থায়ী কর্মসংস্থান সৃষ্টি

: ৮১,৩৫৫ জন।
যুব কল্যাণ তহবিল থেকে অনুদান বিতরণকৃত যুব সংগঠনের সংখ্যা : ৯৩৮৯ টি।
যুব কল্যাণ তহবিলের মূলধনের পরিমাণ : ১৫ কোটি টাকা।
অনুন্নয়ন খাত থেকে বিতরণকৃত অনুদানের পরিমাণ : ১২৮.৩৫ লক্ষ টাকা।
অনুন্নয়ন খাত থেকে অনুদান বিতরণকৃত যুব সংগঠনের সংখ্যা : ২১৬৭ টি।
যুব সংগঠন তালিকাভুক্তি : ১৭,৫০৭ টি।
যুব উন্নয়ন বিষয়ে ডিপ্লোমা লাভ : ১৭৫ জন।
জাতীয় যুব পুরষ্কার প্রদান : ৩৩০ জন।
কমনওয়েলথ যুব পুরষ্কার লাভ : ১৯ জন।
সার্ক যুব পুরষ্কার লাভ : ০২ জন।
প্রশিক্ষণ কেন্দ্র : ১১১ টি।
আত্মকর্মী যুবদের মাসিক গড় আয় : ৩০০০/- টাকা থেকে ৫০,০০০/-

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশ যুব সমাজের অন্তভূর্ক্ত। জাতীয় যুবনীতি অনুসারে বাংলাদেশের ১৮-৩৫ বছর বয়সী জনগোষ্ঠীকে যুব হিসেবে অভিহিত করা হয়। কর্ম প্রত্যাশী অনুৎপাদনশীল যুব সমাজকে সুসংগঠিত, সুশৃংখল এবং উৎপাদন মুখী শক্তিতে রূপান্তরের লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ১৯৭৮ সালে যুব উন্নয়ন মন্ত্রণালয় সৃষ্টি করেন। পরবর্তীতে এর নামকরণ করা হয়  ‘যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর’। বর্তমানে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর একটি প্রধান কার্যালয়ের মাধ্যমে ৬৪টি জেলাসহ বাংলাদেশের সকল উপজেলায় কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায় ১ জুলাই ১৯৮৫ খ্রি. তারিখে অফিস স্থাপন ও যুব কার্যক্রম শুরু হয়। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কার্যক্রম গুলো হচ্ছে যুব প্রশিক্ষণ, আত্মকর্মংস্থাপন প্রকল্প গ্রহণে উদ্বুদ্ধকরণ, যুব ঋণ প্রদান, যুব সংগঠণ তালিকাভূক্তকরণ  ও অনুদান প্রদান।

ছবি


সংযুক্তি